ব্যাংক জবের ক্ষেত্রে মূল নিয়ামক হচ্ছে এই ২০০ নাম্বারের রিটেন পরীক্ষা। | EjobsBD
add

ব্যাংক জবের প্রস্তুতিঃরিটেন

Posted on June 19, 2019 by  EjobsBD
add

ব্যাংক জবের ক্ষেত্রে মূল নিয়ামক হচ্ছে এই ২০০ নাম্বারের রিটেন পরীক্ষা। এখানে ভালো করতে পারলে অন্যদের থেকে অনেক এগিয়ে থাকা যায়। তো, রিটেনে ভালো করার জন্য কী করবেন? আমার কিছু পরামর্শ-

➡ গণিতঃ সাম্প্রতিক প্রেক্ষিতে দেখা যাচ্ছে, ব্যাংকের রিটেন পরীক্ষা মানেই গণিতের দক্ষতা যাচাই করা। মোট নাম্বারের ৩৫-৪৫% নাম্বার বরাদ্দ থাকে গণিতে। ফলে গণিত বাদ দিয়ে ব্যাংক রিটেনের কথা চিন্তাও করা যায় না। গণিতের প্রশ্ন সাধারণত কিছু নির্দিষ্ট বিষয় থেকেই হয়। যেমন- অনুপাত-মিশ্রণ, ট্রেন, নৌকা ও স্রোত, সম্ভাব্যতা, শতকরা ইত্যাদি। এই বিষয়ের অংক প্র‍্যাকটিস করার পাশাপাশি পূর্বের পরীক্ষার প্রশ্ন সমাধান দেখে নেওয়া যেতে পারে। গণিতে প্র‍্যাকটিসের চেয়ে বড় কোন হাতিয়ার নেই।

➡ ফোকাস রাইটিংঃ বাংলা-ইংরেজি দুই বিষয়েই ভিন্ন ধরনের ফোকাস রাইটিং আসে। এজন্য কিছু স্পেসিফিক টপিক যেমন- মধ্যপ্রাচ্য ইস্যু, চীন-মার্কিন বাণিজ্য যুদ্ধ, অর্থনীতিতে ব্যাংকিং সেক্টরের ভূমিকা, ব্যাংকিং সেক্টরের নিরাপত্তার জন্য করণীয় ইত্যাদির পাশাপাশি সাম্প্রতিক টপিকগুলো দেখে নেওয়া যেতে পারে। এক্ষেত্রে ২০১৯-২০ অর্থবছরের বাজেট একটি গুরুত্বপূর্ণ টপিক হিসেবে থাকতে পারে। ফোকাস রাইটিং এর ক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ হলো- যত বেশি সম্ভব তথ্য দেওয়া। দুই পৃষ্ঠা গতানুগতিক লেখার চেয়ে দুই প্যারা তথ্যভিত্তিক লেখা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ এবং বেশি নম্বর প্রাপ্তিতে সহায়ক। সুতরাং তথ্যভিত্তিক লেখার চেষ্টা করুন।

➡ পেসেজঃ কমন পাবেন না এটা ধরে নিয়েই পরীক্ষা দিতে যাবেন। ভাগ্য ভালো হলে কমন পেয়েও যেতে পারেন। আর না পেলেও খুব বেশি সমস্যা হবার কথা নয়, বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই জাতীয় ও আন্তর্জাতিক পরিসরে ঘটে যাওয়া বিষয়গুলো নিয়েই পেসেজ থাকে। এর বাইরে অর্থনীতি বা কোন সচেতনতামূলক বিষয় নিয়েও থাকতে পারে। পেসেজ পড়ার আগে প্রশ্নগুলো দেখে নিন, এরপর পেসেজ পড়ুন এবং প্রশ্নের উত্তর খুঁজে বের করার চেষ্টা করুন।

➡ আবেদন/চিঠিঃ বিশেষ কয়েকটি নিয়ম দেখে নিতে পারেন। যেমন- বিজনেস লেটার, লেটার ইন রেসপন্স টু জব অফার (সোজা বাংলায় চাকরির দরখাস্ত), রিপোর্টিং লেটার, পত্রিকায় প্রকাশের লেটার ইত্যাদি ফরম্যাটগুলো দেখে নিতে পারেন।

👉 আমার মত গণিতে দুর্বল হলে প্রথমেই গণিতের উত্তর দিতে যাবেন না। এতে রিটেন অংশ শেষ করার মত যথেষ্ট সময় পাবেন না, আর পেলেও ভালোভাবে লিখতে পারবেন না। এমন হলে আগে রিটেন শেষ করে পরে গণিতে মনোযোগ দিন।

সবার পরীক্ষা ভালো হোক। শুভ কামনা.....

"Collected"

ad link responsive
add
add